যশোরের শার্শার আমলাই গ্রামে নিজ বাড়ির উঠান থেকে সোনাভান (৪২)বছর বয়সী স্বামী পরিত্যক্তা এক নারীর রক্তাক্ত লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ।
এলাকা বাসি আত্মীয় স্বজন এবং পুলিশ সূত্রে ধারনা করা হচ্ছে তাকে পরিকল্পিত ভাবে হত্যা করা হয়েছে ।প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তার প্রাক্তন স্বামী আব্দুর রশিদকে পুলিশ হেফাজতে নেওয়া হয়েছে বলে পুলিশ জানিয়েছে।
তথ্য অনুসন্ধানে জায়া যায় ইং ২৩/১১/তাং ২৩ বৃহস্পতিবার রাত ৮.৩০ মিনিটের দিকে শার্শা উপজেলার আমলাই গ্রামের নিজ বাড়ীর উঠানে বসে মাছ কাটছিলেন সোনাভান এসময় পিছন থেকে অজ্ঞাত কে বা কাহরা মেহগনি গাছের ডাল দিয়ে স্বজোরে তাকে আঘাত করলে ঘটনা স্হলে নিহত হয় এবং মুহুর্তের মধ্যে খুনি বা খুনিরা পালিয়ে যায়।ঘটনাস্থল থেকে একটি মেহেগনি গাছের ডালটি উদ্ধার করা হয়েছে।
নিহত সোনাভান শার্শা উপজেলার আমলাই গ্রামের মৃত মফেজউদ্দিনের মেয়ে ২ সন্তানের জননী সোনাভান।
খুনের বিষয়ে শার্শা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা জানান সোনাভানের রক্তমাখা লাশ দেখতে পেয়ে স্থানীয়রা থানায় খবর দিলে রাতেই লাশটি উদ্ধার করা হয়েছে।ময়নাতদন্তের জন্য যশোর সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তার প্রাক্তন স্বামী আব্দুর রশিদকে পুলিশ হেফাজতে নেওয়া হয়েছে।তার খুন হওয়ার কারন এখনো জানা যায়নি তবে উদঘাটনের চেষ্টা চলছে।