আমিন হাসানঃ কুষ্টিয়া দৌলতপুর উপজেলার পুড়াশোলুয়া গ্রামের মৃত আজিম উদ্দিনের ছেলে হজরত ও হজরতের ছেলে আসালতের পূর্ব শত্রুতার জেরে বাড়িঘর ভাংচুর ও লুটপাটের অভিযোগ উঠেছে। এ সময় ১ শতাধিক ককটেল বিস্ফরণ হয়েছে বলে দাবী এলাকাবাসীর।
শুক্রবার (২৪ নভেম্বর) সকাল ৮ টার দিকে ভাংচুর ও লুটপাটের ঘটনা ঘটে।
এ বিষয়ে আসালতের স্ত্রী তানিয়া খাতুন ও হজরত আলীর মেয়ে আমেনা খাতুন বলেন, আজ প্রায় ৩ বছর যাবত আমাদের মন্ডল বংশের সাথে মালিথা ও মাল বংশের লোকজনের ঝামেলা চলছে। তারা আজ সকালে হঠাৎ বি এন পি নেতা ফজল মালিথার ছেলে সোহেল মালিথা, আশরাফুল ও রঞ্জিত মালের নেতৃত্ব আমাদের লোকজনের বাড়িতে হামলা চালায়। এ বাড়ি ঘরের ব্যাপক ক্ষতি সাধন করে ও লুটপাট করে। এ সময় তারা প্রায় একশতাধিক হাত বোমার বিষ্ফরণ ঘটায়। আমরা এই ঘটনার তদন্ত করে সঠিক বিচার দাবি করছি।
এ বিষয়ে অভিযুক্ত পিয়ারপুর ইউনিয়ন সেচ্ছাসেবক দলের সদস্য সচিব সোহেল রানার সাথে যোগাযোগ করার চেষ্টা করলে তাকে পাওয়া যায় নাই। এ সময় সোহেলের স্ত্রী বলেন আমার স্বামী বাড়িতে নাই ঢাকায় আছে।
এ বিষয়ে দৌলতপুর ভেড়ামারা সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মহসীন আল মুরাদ বলেন, সংঘর্ষের খবর শোনার সাথে সাথে দৌলতপুর থানার অফিসার ইনচার্জ রফিকুল ইসলাম সহ অফিসার ফোর্স নিয়ে আমরা ঘটনাস্থলে উপস্থিত হই এখন পরিস্থিতি পুলিশের নিয়ন্ত্রণে। ঘটনা স্থান থেকে তাজা ৬ টি ককটেল সহ মৃত কেয়ামত মালের ছেলে রঞ্জিত মাল নামে একজন ব্যক্তিকে আটক করা হয়েছে। এ সময় আরো বেশ কিছু বিস্ফোরিত ককটেলের আলামত, দেশীয় তৈরি অস্ত্রশস্ত্র জব্দ করা হয়েছে। এ বিষয়ে মামলার প্রক্রিয়াধীন।