মোঃ রবিউল ইসলাম হৃদয় (কুষ্টিয়া) : যুদ্ধ নয়, শান্তি চাই এই স্লোগানকে সামনে রেখে গাজায় গণহত্যা ও আন্তর্জাতিক আইন লংঘন বন্ধ হোক ইসরাইল-প্যলেস্টাইন দ্বন্দ্বের ন্যায়সঙ্গত সমাধান হোক এই প্রত্যাশায় কুষ্টিয়ায় মোমবাতি জ্বালিয়ে মানববন্ধন করা হয়েছে।
বুধবার (১৮ অক্টোবর) সন্ধ্যা ৬ টার সময় কুষ্টিয়া লালন শাহ মাজার সংলগ্ন নবপ্রানের সামনে ফরহাদ মাজাহারের নেতৃত্বে এই মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। মানববন্ধনে প্রায় শতাধিক সাধু ও ভক্তরা অংশগ্রহন করেন।
মানববন্ধনে উপস্থিত সাধুবৃন্দরা তাদের বক্তব্যে বক্তারা বলেন, কুষ্টিয়ার ছেউড়িয়ায় ফকির লালন সাঁইজীর তিরোধান দিবস উপলক্ষ্যে বাংলাদেশসহ দেশবিদেশ থেকে যুদ্ধ ও সংঘাত বিরোধী শান্তিপ্রিয় ভক্ত ও সাধককুল একত্রিত হয়েছেন। আমরা খুবই আতংকিত ও মর্মাহত যে ইসরায়েল ঘোষণা দিয়ে খোলা কারাগার’ নামে পরিচিত গাজার ২৩ লক্ষ নিরীহ মানুষকে পানি, খাদ্য ও জ্বালানি সরবারহ বন্ধ করেছে এবং নিরীহ ও নির্দোষ নাগরিকদের আকাশ বোমা মেরে হত্যা করে যাচ্ছে। আমরা মানবতার বিরুদ্ধে এই অপরাধের তীব্র নিন্দা জানাই আমরা যুদ্ধ, সহিংসতা ও সংঘাত বিরোধী বিশ্ববাসীকে অবিলম্বে এই দৃশ্যমান গণহত্যা বন্ধের আহ্বান জানাচ্ছি। হামাসের সহিংস হামলার প্রতিশোধ নেবার জন্য প্যালেস্টাইনের নাগরিকদের খাদ্য, পানি, জ্বালানি বন্ধ করা এবং বিমান থেকে বোমা মেরে হত্যা করা শুধু নৈতিক দিক থেকে অন্যায় ও নিষ্ঠুর নয়, এমনকি পুরা জনগোষ্ঠিকে ‘একযোগে শাস্তি’ (Collective Punishment) দেয়া আন্তর্জাতিক আইন অনুযায়ী মানবতার বিরুদ্ধে অপরাধ। ইজরাইলের বোমা হামলায় হাজার হাজার শিশুর সহ নারীপুরুষ মারা যাচ্ছে। গাজাবাসীদের ঘর বাড়ী ধ্বংস করে দেয়া হয়েছে এবং নিজেদের ঘরবাড়ি ছেড়ে প্যালেস্টাইনবাসীদের ইসরায়েল অন্যত্র চলে যেতে বাধ্য করছে। অথচ তাদের কোথাও যাবার অবস্থা নাই। তাদের খাবার নেই, আহতদের কোন চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে না। এই বর্বর হত্যাকাণ্ডে আমাদের বিবেক ও হৃদয় মারাত্মক আন্দোলিত এবং আমরা শোকগ্রস্ত। এই অন্যায়ের আমরা প্রতিবাদ জানাই। নিজবাসভূমি থেকে উৎখাত হয়ে যাওয়া প্যালেস্টাইনের জনগণের নিজবাসভূমি ফিরিয়ে দেওয়া হোক এবং শান্তিতে বসবাসের অধিকার নিশ্চিত করা হোক। প্যালেস্টাইনের জনগণের প্রতি আমরা সংহতি প্রকাশ করছি। বিশ্বের সকল মানুষের প্রতি আহবান জানাচ্ছি, ফিলিস্তিনের জনগণের ন্যায্য দানীর পক্ষে দাঁড়ান, ফিলিস্তিনের এতিম মাসুম শিশু ও জননীদের পক্ষে দাঁড়ান। প্যালেস্টাইন সহ দুনিয়ার সর্বত্র অন্যায় দখলদারিত্বের অবসান হোক। শান্তি, বিবেক, প্রীতি, প্রেম ও শুভবুদ্ধির আবাহনের জন্য আমরা নবপ্রাণ আখড়াবাড়িতে সকলে মিলে মোমবাতি জ্বালিয়ে সারা বিশ্বের শান্তিপ্রিয় বিবেকবান মানুষের দৃষ্টি আকর্ষণ করছি। পতিত ও অনাথের যিনি ত্রাতা তিনি যেন মানুষকে উদ্ধার করেন।