আছানুল হকঃ কুষ্টিয়ার দৌলতপুর উপজেলায় খেজের আলী মন্ডল (৬৫) নামে এক ব্যক্তির লাশ উদ্ধার করেছে দৌলতপুর থানা পুলিশ।
শনিবার (৭ অক্টোবর ) সকাল অনুমানিক ৭ টার পরে উপজেলার রিফায়েতপুর ইউনিয়নের খেজের আলী মন্ডলের নিজ বাড়ির পিছনে কবর স্থান সংলগ্ন কুমর আলীর জমিতে মাথা থেঁতলানো মরা দেহ পড়ে থাকতে দেখে, দৌলতপুর থানা পুলিশকে জানান এলাকাবাসী ।
খেজের আলী মন্ডন দৌলতপুর উপজেলার রিফায়েতপুর ইউনিয়নের সংগ্রাম পুর গ্রামর মৃত ছুরাত আলী মন্ডলের ছেলে।
এ বিষয়ে নিহত খেজের আলী মন্ডলের পুত্রবধূ লিপি আরা বলেন, আমি আজ প্রায় দুই মাস যাবত আমার বাবার বাড়ি হরিন গাছী গ্রামে ছেলে মেয়ে নিয়ে অবস্থান করছি। আমার স্বামী কাজকর্ম করেনা তাই তার বাবা বিদেশ পাঠানোর জন্য জমি জায়গা লিজ দিয়ে বিদেশ পাঠানোর চেষ্টা করছে। আজ শনিবার (৭ অক্টোবর) দিনগত রাতে মালোশিয়ার ফ্লাইট আমার স্বামীর। আমার স্বামী তাই আমাদের পাশের গ্রাম পিয়ারপুর ইউনিয়নে সাতগাছা গ্রামে খালার বাসায় ছিল। আমার শোশরু একা বাড়িতে ছিলো। কে বা কাহারা আমার শোশুর কে হত্যা করেছে আমি এই ঘটনার বিচার চাই।
এ বিষয়ে নিহত খেজের আলী মন্ডলের ছেলে আনারুল ইসলাম মন্ডল বলেন, আমি বিদেশ যাবো সেই কারনে আমার বাবার সাথে শুক্রবার বিকালে বাড়িতে এসে দেখা করে যায়। রাতে আমি পাশের গ্রামে আমার খালার বাসায় ছিলাম সকালে শুনছি আমার বাবাকে কে বা কাহারা হত্যা করে মাঠের মাঝে ফেলে গেছে। আমি আমার বাবার হত্যা কারিদের বিচার দাবি করছি।
এ বিষয় ঘটনা স্থান পরিদর্শন করেন দৌলতপুর থানা পুলিশের অফিসার ইনচার্জ রফিকুল ইসলাম ও ভেড়ামারা -দৌলতপুর সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মহসীন আল মুরাদ।
এ বিষয়ে ভেড়ামারা -দৌলতপুর সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মহসীন আল মুরাদ বলেন, আমরা খবর পায় সংগ্রামপুর কবরস্থান সংলগ্ন কুমর আলীর আবাদি জমিতে একটি মাথা থেঁতলানো মরা দেহ পড়ে আছে। খবর পেয়ে মরা দেহটি উদ্ধার করে তার পরিচয় নিশ্চিত হই। সে সংগ্রাম পুর গ্রামের খেজের আলী মন্ডল।মরা দেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। এবং এই ঘটনার সাথে জড়িতদের সনাক্ত করে গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।