আজ ৫ ই অক্টোবর ২০২৩ ইং বিকাল ৫ টায় শহরের থানাপাড়ায় অবস্থিত কুষ্টিয়ার সর্ববৃহৎ স্বেচ্ছাসেবী সামাজিক সংগঠনসমূহের সংগঠন, ২০১৫ সালে প্রতিষ্ঠিত, সম্মিলিত সামাজিক জোট, কুষ্টিয়ার মাসিক সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।
সম্মিলিত সামাজিক জোটের চেয়ারম্যান ড. আমানুর আমান এর সভাপতিত্বে ও সমন্বয়ক অ্যাড. মো: মুহাইমিনুর রহমান পলল এর পরিচালনায় বক্তব্য রাখেন সম্মিলিত সামাজিক জোটের সিনিয়র সংগঠক ও বিশিষ্ট সাংবাদিক এ.জে. সুজন, মিরপুর উপজেলার ধুবাইল ইউনিয়ন পরিষদ সদস্য ও তাফসীর রিজিয়া যুব কল্যাণ ও ক্রীড়া সংস্থার সভাপতি মাহফুজুর রহমান ফরিদ, স্বপ্ন প্রয়াস যুব সংস্থার সভাপতি সাদিক হাসান রহিদ, জাতীয় পুরষ্কার প্রাপ্ত বিতার্কিক কামরুল হোসেন রোহিত, কুষ্টিয়া ব্লাড ডোনেশনের পরিচালক সানজিদ আহমেদ সিয়াম।
এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন বনায়নে কুষ্টিয়ার প্রতিষ্ঠাতা মীর রীসান, প্রজ্জ্বলিত তারুণ্যের সংগঠক মো: তুষার মাহমুদ, মো: জিহাদ খন্দকার, বঙ্গবন্ধু ব্লাড ডোনেশনের সংগঠক তামান্না ইভা মিমি, জান্নাতি তাসনিম, কুষ্টিয়া ব্লাড ডোনেশনের সংগঠক যাবির মাহমুদ, তালহা জুবায়ের, সৈয়দ আদনান তাসিন, জহির রায়হান।
সাংগঠনিক সভায় নারী উদ্যোক্তা সংবর্ধনার সম্ভন্য নির্ধারণ করা হয় ২৬ শে অক্টোবর, সম্মিলিত সামাজিক জোটের সদস্য ফর্ম বিতরণ ও জমাদান এবং সাংগঠনিক পরিচয়পত্র প্রস্তুতের জন্য সহ সমন্বয়ক সাদিক হাসান রহিদকে দায়িত্ব প্রদান করা হয়, মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে ইন্টারনেট আসক্তি ও কিশোর অপরাধ দমনে শিক্ষক এবং অভিভাবকদের সমন্বয়ে সচেতনতামূলক সেমিনার আয়োজনের জন্য বিতার্কিক কামরুল হাসান রোহিতকে দায়িত্ব অপর্ণ করা হয়।
এছাড়াও নভম্বরে ২ দিন ব্যাপী নেতৃত্ব উন্নয়ন কর্মশালা ও ডিসেম্বরে প্রতিষ্ঠা বার্ষিকীর উদযাপনকালীন সময়ে বার্ষিক বনভোজনের তারিখ নির্ধারণ করা হয়।
আলোচনায় প্রতিষ্ঠাতা ড. আমানুর আমান বলেন, ২০১৫ সালে প্রতিষ্ঠার পর থেকে সম্মিলিত সামাজিক জোট প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষভাবে সমাজ উন্নয়নে ভূমিকা রেখে চলেছে, করোনাকালীন অর্ধ শতাধিক স্বেচ্ছাসবক, মানুষের ঘরে ঘরে জেলা প্রশাসনের সাথে কাজ করে প্রমাণ করেছেন সেবার ব্রতী নিয়ে কুষ্টিয়ার যুব সমাজ অগ্রগামী ভূমিকা রাখবে ভবিষ্যতে আধুনিক ও স্মার্ট কুষ্টিয়া বিনির্মানের স্বেচ্ছাসেবার দায়িত্ব পালনের মাধ্যমে।
সহ প্রতিষ্ঠাতা অ্যাড. পলল বলেন সম্মিলিত সামাজিক জোটের অর্ধ যুগের একটি ইতিহাস আছে এ শহরের মানুষের সেবায় কর্মকান্ডের, নানা কারণে এ ৮ বছরের যাত্রায় সম্প্রতি ১ বছর এবং পূর্বে ১ বছর স্থবিরতা আসে সংগঠনগুলোর সাংগঠনিক ব্যস্ততা ও যোগাযোগের কারণে। অচিরেই সকল বিপত্তি কাটিয়ে চমকপ্রদ কর্মসূচি নিয়ে কুষ্টিয়াবাসীর সেবায় নিয়োজিত হবে জোট।
উল্লেখ্য যে ২০১৫ সালে ২০ টি সংগঠন একত্র হয়ে স্থানীয় ভাবে মৈত্রী স্থাপনে গঠন করা হয়েছিলো সম্মিলিত সামাজিক জোট, সম্প্রতি অর্ধশতাধিক সামাজিক স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের সমন্বয় করে করোনাকালীন কার্যক্রম এবং নানামুখী ব্যাতিক্রমধর্মী সামাজিক কর্মসূচির মাধ্যমে জেলার সকল শ্রেণি পেশার মানুষের আস্থা অর্জনে নিজেদের সামাজিক অবস্থান অর্জন করে সংগঠনসমূহের সংগঠন এ প্লাটফর্মটি। ৮ ম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী সামনে রেখে সাংগঠনিক ভিত্তি স্থায়ী করণে স্থানীয় স্বেচ্ছাসেবী সতন্ত্র সংগঠনের কর্মসূচীতে সহায়তা ও পরামর্শকের উদ্দেশ্যে কাজ করবে সম্মিলিত সামাজিক জোট।