আজ ৫ ই জুলাই, ২০২৩ রোজ বুধবার কুষ্টিয়া বড় মসজিদের সামনে বাদ আছর কুষ্টিয়ার তরুণ প্রজন্ম ও সচেতন যুব সমাজের পক্ষ থেকে ২৮ শে জুন পবিত্র ঈদ উল আযহা এর দিন সুইডেনের রাজধানী স্টোকহোম এর সেন্ট্রাল মসজিদের সামনে ২ জন ব্যাক্তির পবিত্র কোরআন পোড়ানোর প্রতিবাদে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়।
উল্লেখ্য যে সুইডেনের আদালত তাদের রায়ে বলেছে, ”কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে কোরআন পোড়ানো হলে নিরাপত্তার ক্ষেত্রে সমস্যা হতে পারে। বর্তমান আইন অনুসারে এই কাজে বাধা দেয়া যায় না। আর নিরাপত্তার বিষয়টি এত বড় নয় যে বাধা দেয়া ঠিক হবে। সেজন্য পুলিশ কর্তৃপক্ষ যেন এই জমায়েতের অনুমতি দেয়”।
পবিত্র কোরআন পোড়ানোর ঘটনা সুইডেনে বারবার করে ঘটছে। অতি-দক্ষিণপন্থিরা অতীতে এই কাজ করে বিতর্কের ঝড় তুলেছেন।অতি-দক্ষিণপন্থি রাজনীতিবিদ পালুদান তো এই কাজ করে বিতর্কের কেন্দ্রে থেকেছেন। তবে এবারের ঘটনার সঙ্গে তার কোনো যোগ নেই।
গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশের সংবিধানের ৩৭, ৩৮, ৩৯ নং অনুচ্ছেদ অনুযায়ী সমাবেশ, সংগঠন ও চিন্তা বা বিবেকের স্বাধীনতার আওতায় আইনানুগ বিধি মেনে একজন মুসলিম হিসেবে যে মানবিক আঘাতটুকু আমরা কোরআন পোড়ানোর ঘটনায় পেয়েছি তার প্রতিবাদ কুষ্টিয়ার তরুণ প্রজন্ম ও সচেতন যুব সমাজ মানববন্ধনের উদ্যোগ নেয়।
এ সময় উপস্থিত ছিলো কুষ্টিয়া কেন্দ্রীয় বড় জাম্র মসজিদ কমিটি, থানাপাড়া ঈদগাহ কমিটি, এনএস রোডের দোকানের ব্যবসায়ী, গণমাধ্যম কর্মী, বিভিন্ন স্বেচ্ছাসেবী সামাজিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দ ও বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থী এবং মসজিদে নিয়মিত জামাত আদায়কারী মুসল্লীগণ।