আঃজলিল,স্টাফ রিপোর্টারঃ যশোরের শার্শার বাগআঁচড়া প্রেসক্লাবের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন ২০২৩ অনুষ্ঠিত।
২৯/৫/২৩ তাং সকাল ১১ঘটিকার সময় বাগআঁচড়া প্রেসক্লাবের কার্য্যালয়ে উৎসব মুখোর পরিবেশে শার্শার বাগআঁচড়া প্রেসক্লাবের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছে।

সম্মেলনে প্রতিষ্ঠা কালিন সভাপতি হেদায়েত উল্লাহ সভাপতিত্বে ও বাগআঁচড়া প্রেসক্লাবের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক আসাদুজ্জামান নয়নের সঞ্চালনায় প্রধান অতিথীর বক্তব্য রাখেন ফজিলাতুন্নেছা মহিলা কলেজের প্রভাষক সিনিয়র সাংবাদিক আসাদুজ্জামান আসাদ।
উপদেষ্টা মণ্ডলীর সদস্য সিনিয়র সাংবাদিক আলহাজ্ব রবিউল হোসেন।

বিশেষ অতিথি ছিলেন শার্শা প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক ইয়ানূর রহমান, নাভারণ প্রেসক্লাব সভাপতি আমিনুর রহমান, নাভারণ প্রেসক্লাব সাধারণ সম্পাদক রাজু আহমেদ, বাগআঁচড়া ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ডাঃ সাখাওয়াত হোসেন। ২৯মে সোমবার পূর্বের কমিটি বিলুপ্ত করে নবগঠিত কমিটিতে সাইফুজ্জামান মন্টুকে সভাপতি (দৈনিক প্রজন্ম ৭১) সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর আলম (দৈনিক ভোরের পাতা,স্পন্দন ) ও জিল্লুর রহমান মিন্টুকে (পূর্বাঞ্চল ) সাংগঠনিক সম্পাদক করে ২৩ সদস্য বিশিষ্ট বাগআঁচড়া প্রেসক্লাবে ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন এ-র মাধ্যমে কায্যনির্বাহী কমিটি গঠন করা হয়। কমিটির অন্যন্যরা হলেন সহ-সভাপতি আব্দুল জলিল ( দৈনিক আশ্রয় প্রতিদিনও দৈনিক ক্রাইম তালাশ ), মিজানুর রহমান ( দৈনিক গ্রামের কাগজ), মহসিন কবির (ক্রাইম ওয়াচ নিউজ), যুগ্ম সম্পাদক আসাদুজ্জামান নয়ন (দৈনিক সত্যপাঠ), শাহারিয়ার হোসেন (খাঁনজাহান আলী নিউজ), এবিএস রনি (ঢাকা ক্যানভ্যাস), সহ-সাংগঠনিক ইমতিয়াজ আহাম্মেদ স্বপন (দৈনিক জন্ম ভূমি ), খলিলুর রহমান (গ্রামের সংবাদ), প্রচার সম্পাদক তৌহিদুর রহমান সবুজ (দৈনিক কল্যাণ) কোষাধ্যক্ষ নাজিম উদ্দীন জনি (দৈনিক গ্রামের কন্ঠ), দপ্তর সম্পাদক হুমায়ুন কবির মিরাজ (দৈনিক প্রতিদিনের কথা), তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক আব্দুল জব্বার (দৈনিক যশোর), আইসিটি সম্পাদক শাহরুল ইসলাম রাজ (দৈনিক সুপ্রভাত সাতক্ষীরা) আইন বিষয়ক সম্পাদক মেহেদী হাসান মোল্যা (দৈনিক নোয়াপাড়া), ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক এএস আব্দুল্লাহ (বিবিএস নিউজ২৪), কার্যনির্বাহী সদস্য হাসানুল কবির (দৈনিক কালের কন্ঠ), শহিদুল ইসলাম(দৈনিক যশোর), নূরে হাবিব(দৈনিক বিশ্ব মানচিত্র), সোহাগ আলী(দৈনিক সময়ের দিগন্ত)।

পরিশেষে পৃতি মর্ধ্যান্নভোজের মধ্যে দিয়ে বাগআঁচড়া প্রেসক্লাবের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলনের উত্তর উত্তর ভবিষ্যৎ কামনা করে অনুষ্ঠানের কার্যক্রমের পরিসমাপ্তি ঘোষণা করা হয়।