কুষ্টিয়া দৌলতপুরঃ কুষ্টিয়া দৌলতপুর উপজেলার হোগলবাড়ীয়া ইউনিয়ন ৮ নং ওয়ার্ডের মেম্বার আসাদুল ইসলাম এর ছেলে রিয়ন কে পূর্ব শত্রুতার জেরে হত্যার উদ্দেশ্যে হামলা চালানোর সময় হাত কুড়াল সহ হামলাকারীর ১ সদস্যকে আটক করেছে এলাবাসী। শনিবার সকাল ৯ টার পরে মথুরাপুর বাজার থেকে তাকে আটক করে এলাকাবাসী।

এলাকাবাসী, কামরুল ইসলাম, হারেজ উদ্দিন, শান্ত সহ আর অনেক বলেন, একটি লাল কালার মোটরসাইকেলে একটি ছেলে হোসেনাবাদ এলাকার দিক থেকে মথুরাপুর বাজারের দিকে আস ছিল । এমন সময় তার পিছনের দিক থেকে মোটরসাইকেল যোগে বেশ কিছু ব্যক্তি তাকে হত্যার উদ্দেশ্যে আগ্নেঅস্ত্র ও হাতকুড়াল নিয়ে তাড়া করে আসছিল, মথুরাপুর বাজারে পৌঁছাতেই লাল মোটরসাইকেল যোগে আসা ছেলেটা তার গাড়ির গতি কমালে পিছন থেকে হামলাকারীর গাড়ি ধাক্কা দেয় তখন আবার লাল মোটরসাইকেল চালক গাড়ির গতি বাড়িয়ে মথুরাপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ভিতরে প্রবেশ করলে হামলাকারীরা হাত কুড়াল দিয়ে ধাওয়া দেয় । আমরা বুঝতে পারলাম তাকে ধরতে পারলে তাকে হয়তো হত্যা করে ফেলবে। আমরা বুঝতে পারার সাথে সাথে তাদের ধাওয়া দিলে তারা মোটরসাইকেল রেখে পালানোর চেষ্টা করে এ সময় বাজারে উপস্থিত এলাকাবাসী একটি হাতকুড়াল সহ একজন কে আটকে ফেলে।

এ বিষয়ে আসাদুল ইসলাম মেম্বারের চাচা মোবাইদুল হক বলেন, প্রায় ১ বছর আগে জয়রামপুর গ্রামের মৃত নিপুন মোল্লার ছেলের সাথে আসাদুল মেম্বারের ছেলে ও বন্ধুদের সাথে গ্যাঞ্জাম হয়। পরে সেই ঘটনায় থানায় মামলা হয়। মামলা বর্তমানে আদালতে চলমন আছে। আজ শনিরাব সকাল অনুমানিক ৯ টার পরে মেম্বারের ছেলে রিয়ন এস এস সি পরিক্ষা দেওয়ার জন্য বাড়ি থেকে বের হয়ে মথুরাপুর পরিক্ষা কেন্দ্রের দিকে যাওয়ার সময় তাকে পূর্ব শত্রুতার জেরে হত্যার উদ্দেশ্যে হামলা চালায়। আমরা এই ঘটনার তদন্ত করে বিচার দাবি করছি।

এ সময় দৌলতপুর থানা পুলিশের এস আই চিরঞ্জিত মন্ডল ঘটনা স্থলে উপস্থিত হয়ে এলাকাবাসীর হাতে আটককৃত ব্যক্তিকে পুলিশে হেফাজতে নেন এবং আটককৃত ব্যক্তির পরিচয় নিশ্চিত করেন। তিনি চরদিয়াড় এলাকার মুকতারের ছেলে সেলিম ।