কুষ্টিয়ার দৌলতপুর উপজেলার ফারাকপুর এলাকা থেকে এস,আই চিরঞ্জিৎ মন্ডল ১কেজি গাঁজাসহ তারাগুনিয়া এলাকার মোশারক হোসেন এর ছেলে আজাদ হোসেন ও রাজশাহী জেলার বাঘা উপজেলা এলাকার মান্নান এর ছেলে মনিরুল ইসলাম নামে দুইজন মাদক ব্যবসায়ীকে আটকের পর দেন দরবার করার সময় পুলিশের হাত থেকে পালিয়ে যায় মাদক ব্যবসায়ী আজাদ।

ঘটনাস্থলে উপস্থিত প্রতক্ষদর্শীরা জানায়, বুধবার মথুরাপুর ইউনিয়নের তারাগুনিয়া ফারাকপুর এলাকায় ১কেজি গাঁজাসহ মাদক ব্যবসায়ী আজাদ ও মনিরুল ইসলাম কে গ্রেফতার করে দৌলতপুর থানার এস,আই চিরঞ্জিৎ মন্ডল। গ্রেফতার করার পর আসামীদের থানায় না নিয়ে এসে তারাগুনিয়া বাজারে অবস্থিত হাছানাত এর হাজী নান্না বিরিয়ানি হাউজে শুরু হয় দর কষাকষি। ঔ সময় মাদক ব্যবসায়ী আজাদের লোকজন পুলিশের উপর হামলা চালিয়ে তাকে ছিনিয়ে নিয়ে যায়। পরে আজাদ কে না নিয়ে-ই মনিরুল’কে আটক করে থানায় নিয়ে আসে এস,আই চিরঞ্জিৎ মন্ডল।

এব্যাপারে এস,আই চিরঞ্জিৎ মন্ডল এর কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, গাঁজাসহ গ্রেফতার করা হয়েছে মনিরুল ইসলাম নামে একজন মাদক ব্যবসায়ীকে। ঘটনাস্থল থেকে মাদক ব্যবসায়ী আজাদ নামে কাওকে গ্রেফতার করেছিলেন কিনা? এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, আজাদ কে গ্রেফতার করতে পারি নাই সে আমাদের পুলিশ সদস্যদের মেরে টেরে ইট পাটকেল ছুড়ে পালিয়ে গেছে বলে জানান তিনি।

বিষয়টি জানার জন্য দৌলতপুর থানার ওসি মুজিবুর রহমানের কাছে জানতে চাইলে তিনি ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, মনিরুল ইসলাম নামে একজন কে গ্রেফতার করা হয়েছে এবং আজাদ নামের আরেকজন কে গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে বলে জানান তিনি।

এবিষয়ে দৌলতপুর থানায় একটি মামলা হয়েছে, মামলা নং-৬৯।