শিরোনামঃ
এখন টিভির কুষ্টিয়া প্রতিনিধি সোহেল পারভেজের জন্মদিন আজ কুষ্টিয়া ট্রাফিক অফিস বার্ষিক পরিদর্শন করলেন এসপি খাইরুল আলম সুশাসন প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে ইবিতে অংশীজনদের সমন্বয় সভা। মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর নিকট থেকে ইবি হ্যান্ডবল দল ও বাস্কেটবল দলের (চ্যাম্পিয়ন) পদক গ্রহণ। ইবিতে গ্লোবাল সিটিজেনশিপ এন্ড সিভিক এডুকেশন শীর্ষক দিনব্যাপী কর্মশালা অনুষ্ঠিত। দেশের সর্ববৃহৎ ব্যাংকিং নেটওয়ার্ক গড়ার প্রত্যয়ে আইএফআইসি ব্যাংক বিভিন্ন আয়োজনের মধ্যে দিয়ে পালিত হলো ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় দিবস। জনবাণী পত্রিকায় কুষ্টিয়া জেলা প্রতিনিধি হিসেবে নিয়োগ পেলেন সাংবাদিক হৃদয় কুষ্টিয়ায় ফুল বিক্রেতার গলা কাটা লাশ উদ্ধার ইবি’র ৪৩ বছর পূর্ণ হচ্ছে কাল

কুষ্টিয়ায় দশম শ্রেনীর ছাত্রীর নগ্ন ভিডিও ধারণ করে একাধিকবার ধর্ষণ

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদকঃ রবিউল ইসলাম(হৃদয়)
  • আপডেটের সময়। শনিবার, ১ অক্টোবর, ২০২২
  • ৬৭০ টাইম ভিউ

কুষ্টিয়ার কুমারখালী উপজেলার নন্দলালপুর
ইউনিয়নের আলাউদ্দিন নগর এলাকায় দশম শ্রেনী স্কুল পড়ুয়া ছাত্রীকে প্রেমের সম্পর্কের জেরে নগ্ন ভিডিও ধারন করে একাধিকবার ধর্ষণ করার অভিযোগে উঠেছে আলাউদ্দিন নগর এলাকার মুক্তার হোসেনের ছেলে আলামিন হোসেন (২৪) এর বিরুদ্ধে। এ বিষয়ে ভুক্তভোগী ঐ ছাত্রীর দাদী বেগম (৫৫) বাদী হয়ে গত ২২ সেপ্টেম্বর ২০২২ ইং তারিখে কুমারখালী থানায় মামলা দায়ের করেছেন। যার মামলা নং ৩৮/২৯৮।

মামলার এজাহার সূত্রে জানা যায়, দশম শ্রেনীর স্কুল পড়ুয়া ছাত্রী স্কুলে যাওয়া আসা কালে আলামিন তাকে প্রেমের প্রস্তাব দেয় । এক পর্যায়ে আলামিন হোসেনের সহিত তার প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে । এরপর আলামিন তার বেশ কয়েকজন বন্ধুসহ তাকে প্রলুব্ধ করে এবং বিভিন্নভাবে ফুসলিয়ে গত ৩ মার্চ ২০২২ ইং রাত অনুমান
৮ টার সময় আলামিনের বাড়ীতে নিয়ে যায় এবং তার ইচ্ছার বিরুদ্ধে ধর্ষণ করে ।

এজাহার সূত্রে আরো জানা যায়, ধর্ষণের সময় আলামিন ও তার বন্ধুরা সুকৌশলে ভুক্তভোগী ছাত্রীর ধর্ষণের ভিডিও ও নগ্ন ছবি
তাদের মোবাইলে ধারন করে রাখে । এরপর ৬ মার্চ ২০২২ ইং ভোর অনুমান ৫ টার সময় আলামিন এবং তার বন্ধুরা ছাত্রীকে ধারণকৃত ভিডিও ও নগ্ন ছবি দেখিয়ে ব্লাকমেইল করতে
থাকে । এইভাবে আলামিন ভিডিও এবং নগ্ন ছবি দেখিয়ে ঐ ছাত্রীকে আরো কয়েকবার ধর্ষন করে ।এরপর ঐ ছাত্রী পুরো ঘটনাটি তার দাদীর কাছে জানায় এবং ছাত্রীর দাদী অলামিনের কাছে ধারনকৃত ভিডিওটি ডিলিট করতে বলে ।কিন্তু আলামিন ও তার বন্ধুরা কোন কথা না শুনে পুনরায় ঐ ছাত্রীকে ধারণকৃত ভিডিও এবং নগ্ন ছবি দেখিয়ে ধর্ষণ করতে চায় এবং তাদের কথা না শুনলে ধারণকৃত ভিডিওটি ও ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছেড়ে দেওয়ার হুমকী
প্রদান করে । পরে তার দাদী বাধ্য হয়ে আসামীদের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেন। মামলা হাওয়ার পরও আসামী গ্রেফতার না হওয়ায় ভুক্তভোগী ঐ স্কুল ছাত্রী ও তার পরিবারের লোকজন দূঃচিন্তার মধ্যে দিন যাপন করছে। ভুক্তভোগী পরিবারের সদস্যরা নিরাপত্তাহীনতার মধ্যে দিন যাপন করছে বলেও জানা যায় ।ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে কুমারখালী থানার অফিসার ইনচার্জ কামরুজ্জামান তালুকদার জানান, ঘটনার পর থেকে আসামী পলাতক । তাকে ধরতে অভিযান অব্যহত আছে ।

আপনার সামাজিক মিডিয়া এই পোস্ট শেয়ার করুন

এই বিভাগের আরো খবর