শিরোনামঃ
ঘুড়ি প্রতীক নিয়ে লড়বেন অ্যাড. মুহাইমিনুর রহমান পলল কুষ্টিয়া দৌলতপুরে ২০ বোতল ফেনসিডিল ও পাখি ভ্যান সহ ১ জন আটক ইবি থিয়েটারের পথনাটক পরিবেশনা ইবিতে ওবিই কারিকুলাম প্রিপারেশন বিষয়ে কর্মশালা অনুষ্ঠিত নিজ জেলা কুষ্টিয়াতে অভিনন্দন না পেয়ে আক্ষেপ করে যা বললেন সাফ চ্যাম্পিয়ন নীলা কুষ্টিয়ার দৌলতপুরে ডি বি পুলিশের অভিযানে অস্ত্র গুলি সহ আটক-২ কুষ্টিয়ায় পর্নোগ্রাফি আইনে ৬ ছাত্রলীগ নেতাকর্মীর নামে নেত্রীর মামলা কুষ্টিয়ায় ছাত্রলীগ নেতা ও নেত্রীর পাল্টাপাল্টি সংবাদ সম্মেলন   কুষ্টিয়ার দৌলতপুরে সোহেল নামের এক যুবকে হাতুড়ি দিয়ে পিটিয়ে ৫৫ হাজার টাকা আত্মসাৎ কুষ্টিয়ায় সন্তান জন্ম দিয়ে এসএসসি পরীক্ষায় অংশগ্রহন করলেন মা

কুষ্টিয়ায় ছাত্রলীগ নেতা ও নেত্রীর পাল্টাপাল্টি সংবাদ সম্মেলন  

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদকঃ রবিউল ইসলাম(হৃদয়)
  • আপডেটের সময়। বুধবার, ২১ সেপ্টেম্বর, ২০২২
  • ১৬০ টাইম ভিউ

 

কুষ্টিয়ায় এক ছাত্রলীগ নেত্রীকে কুপ্রস্তাব ও শ্লীলতাহানি চেষ্টার অভিযোগ নিয়ে কয়েকদিন ধরে  কুষ্টিয়া জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক শেখ হাফিজ চ্যালেঞ্জ সহ কয়েকজন ছাত্রলীগের বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ দেওয়াকে কেন্দ্র করে সঠিক বিচারের দাবিতে পাল্টা পাল্টি সংবাদ সম্মেলন করেছেন কুষ্টিয়া জেলা ছাত্রলীগ নেতা ও কুষ্টিয়া জেলা ছাত্রলীগের সহ- সম্পাদক ঐ নেত্রী।

 

বুধবার (২১ সেপ্টেম্বর) সকাল ১১টার সময় কুষ্টিয়া বড় বাজার মসজিদ গলির একটি মার্কেটের দ্বিতীয় তলায় সংবাদ সম্মেলন করেছেন নারী ছাত্রলীগ নেত্রী। অপরদিকে একই সময় কুষ্টিয়ার বঙ্গবন্ধু সুপার মার্কেটে অবস্থিত জেলা আওয়ামী লীগের সভাকক্ষে সেই নারী নেত্রীর বিরুদ্ধে বিভিন্ন প্রকার অভিযোগ তুলে সংবাদ সম্মেলন করেন জেলা ছাত্রলীগ নেতারা।

 

সংবাদ সম্মেলনের সময় নারী নেত্রী জানান,  আমার জীবন আজ বিপন্নের পথে। শুধুমাত্র ছাত্রলীগকে ভালােবেসে এবং ছাত্রলীগের রাজনীতি করতে যেয়ে আমি নানাভাবে নির্যাতনের শিকার হয়েছি। বাংলাদেশ ছাত্রলীগের আর্দশ বঙ্গবন্ধুর আদর্শকে বুকে ধারন করে আমি বর্তমান কষ্টিয়া জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক শেখ  হাফিজ  চ্যালেঞ্জের হাত ধরে কুষ্টিয়া জেলা ছাত্রলীগে সাধারন কর্মী হিসেবে কাজ করা শুরু করি। তখন থেকে তার বাসায় আমাকে বিভিন্ন কারনে ডাকতাে। পরবর্তীতে একদিন তার সাথে দল করতে যে কোন শর্তে রাজি হতে বলে। আমি তার প্রস্তাব এড়িয়ে যায় কিন্তু আমার এক দাদার সাথে একটি পারসােনাল টি-শার্ট পরা ছবি চ্যালেঞ্জ কোনভাবে হাতে পাই এবং বাসায় ডেকে ঐ ছবি দেখিয়ে ব্লাকমেইল করে আমাকে কুপ্রস্তাব দেয়। আমি তার প্রস্তাবে রাজি না হলে ওই ছবি ভাইরাল করার ভয় দেখায় তখন আমি ভয় পেয়ে তাকে খারাপ মানুষ বলে চলে আসি আর নিজেকে একা রাখার চেষ্টা করি।এই অপমানের প্রতিশােধ নিতে কুষ্টিয়া জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক শেখ হাফিজ  চ্যালেঞ্জ তার ছােট ভাইদেরকে ঐ ছবি এবং আমার আরও কিছু এডিট করা ছবি ভুয়া আইডি খুলে বাজে ভাষায় ক্যাপশন দিয়ে ফেসবুকে প্রচার শুরু করে। রাস্তা-ঘাটে দেখা হলেই চ্যালেঞ্জের সহযােগিরা আজেবাজে কথাবার্তা সহ আমাকে নানাভাবে হুমকি দিচ্ছে। দিনদিন এর মাত্রা বেড়ে যাওয়ায় আমি কোন উপায়ন্ত না পেয়ে গত ১৯ সেপ্টেম্বর কুষ্টিয়া মডেল থানায় একটি  লিখিত অভিযােগ দেই । কিন্তু থানায় অভিযােগ দিলেও  তিন দিন অতিবাহিত হলেও পুলিশ কোন ব্যবস্থা নেয়নি। উল্টো চ্যালেঞ্জসহ তার সহযােগিরা আমাকে নানাভাবে হুমকি দিয়ে যাচ্ছে। এমনকি তারপর থেকে বিভিন্ন ফেসবুক আইডি থেকে আমার নামে আরাে বেশি বেশি আজেবাজে কথা লিখে পােস্ট করা হচ্ছে। আমি বারবার পুলিশকে জানালেও কোন প্রতিকার পাচ্ছিনা।

 

নারী নেত্রী আরও বলেন, আমার মানহানি করে আমার জীবন নষ্ট করে দিয়েছে । আর এই সব কিছুর জন্য দায়ী মানুষরুপী মুখােশধারী ক্রিমিনাল চ্যালেঞ্জ ও তার সহযােগীরা। এভাবে আমার সাথে ঘটলে আমার আত্মহত্যা করা ছাড়া আর কোন পথ নেই। আমি  মাননীয় প্রধানমন্ত্রী দেশরত্ন শেখ হাসিনা আপা, আইজিপিসহ ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দের হস্তক্ষেপ কামনা করছি। যাতে আমি স্বাভাবিক ভাবে জীবন-যাপন। করতে পারি।

এদিকে কুষ্টিয়া জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক শেখ হাফিজ চ্যালেঞ্জ লিখিত বক্তব্যে বলেন, কুষ্টিয়া জেলা ছাত্রলীগ জঙ্গীবাদ, মৌলবাদ, সাম্প্রদায়িকতার বিরুদ্ধে একটি শক্ত অবস্থান গড়ে তুলেছে এই জেলায়। যে কারণে সংগঠনের মধ্যে ঘাপটে মেরে থাকা জনৈক একজন নারীকে পুঁজি করে তাকে দিয়ে সংগঠনের পদধারী নেতৃবৃন্দকে নানাভাবে হেনস্থা করার ষড়যন্ত্র করছে। আপনারা লক্ষ্য করে দেখবেন যখন ছাত্রদলের ক্যাডাররা আগ্নেয়াস্ত্রসহ পুলিশের হাতে একের পর এক আটক হচ্ছে ঠিক তখনই ছাত্রলীগকে দুর্বল করার লক্ষ্যে চক্রটি মাথাচাড়া দিয়ে উঠেছে। জেলা ছাত্রলীগের পদধারী ঐ নারী যদি তার কোন অভিযোগ থাকে তা গঠনতন্ত্র অনুযায়ী দলীয় ফেরামে উত্থাপন না করে আইন প্রয়োগকারী সংস্থার কাছে যাওয়া এটি দুরভিসন্ধীমূলক আচরণ ছাড়া আর কিছু নয়। সেই নারী নেত্রী

জাতির শোকের মাস আগষ্টে নিজের জন্মদিন কেক কেটে পালন করার কারণে আগামী সভায় আমরা ওই নারী নেত্রীকে বহিস্কারের সিদ্ধান্ত নিতে যাচ্ছি জেনেই সে পরিবেশ ঘোলা করার জন্য এ রকম মিথ্যার আশ্রয় নিয়েছে।

 

সংবাদ সম্মেলনে এ নেতা আরো বলেন, বাংলাদেশ ছাত্রলীগ কুষ্টিয়া জেলা শাখার কমিটি পূর্ণাজ্ঞ করার কাজ যখন করছিলাম তখনি যাচাই-বাছাই করতে গিয়ে সেই নারী নেত্রীর বিরুদ্ধে স্থানীয় আওয়ামী লীগ থেকে বিস্তর অভিযোগ পেয়েছিলাম। বিয়ে করে মামলা দিয়ে জোর করে অর্থ আদায়, অনৈতিক কাজের সাথে সম্পৃক্ততা। যার প্রেক্ষিতে প্রস্তাবিত ১৫১ সদস্য বিশিষ্ঠ জেলা কমিটিতে তার নাম দেয়নি। এতোগুলো সংগঠনবিরোধী কার্যকলাপের সাথে সম্পৃক্ততার কথা জানতে পেরে আমরা কুষ্টিয়া জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি-সাধারণ সম্পাদক তাকে ছাত্রলীগের রাজনীতি না করে অন্য কোন সংগঠন করার জন্য জানিয়েছিলাম।

এ বিষয়ে কুষ্টিয়া মডেল থানার ওসি দেলোয়ার হোসেন খান বলেন, একজন নারী নেত্রীর লিখিত অভিযোগ থেকে মামলা হয়েছে। বিষয়টি নিয়ে কুষ্টিয়া সাইবার ক্রাইম ইনভেস্টিগেশন টিম তদন্ত করছে। তদন্তের মাধ্যমেই আইনগত ব্যাবস্থাগ্রহন করা হবে।

 

উল্লেখ্য,  গত সোমবার (১৯ সেপ্টেম্বর) কুষ্টিয়া জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক শেখ হাফিজ চ্যালেঞ্জ সহ সংগঠনের অন্যান্য নেতৃবৃন্দদের বিরুদ্ধে ছাত্রলীগের এক নারী নেত্রীকে কুপ্রস্তাব ও শালীনতাহানির অভিযোগ এনে কুষ্টিয়া মডেল থানায় অভিযোগ দায়ের করেন ওই নারী নেত্রী। এরপর থেকেই এ বিষয় নিয়ে কুষ্টিয়া জুড়ে ব্যাপক আলোচনা-সমালোচনা শুরু হয়।

 

 

 

 

আপনার সামাজিক মিডিয়া এই পোস্ট শেয়ার করুন

এই বিভাগের আরো খবর