শিরোনামঃ
ঘুড়ি প্রতীক নিয়ে লড়বেন অ্যাড. মুহাইমিনুর রহমান পলল কুষ্টিয়া দৌলতপুরে ২০ বোতল ফেনসিডিল ও পাখি ভ্যান সহ ১ জন আটক ইবি থিয়েটারের পথনাটক পরিবেশনা ইবিতে ওবিই কারিকুলাম প্রিপারেশন বিষয়ে কর্মশালা অনুষ্ঠিত নিজ জেলা কুষ্টিয়াতে অভিনন্দন না পেয়ে আক্ষেপ করে যা বললেন সাফ চ্যাম্পিয়ন নীলা কুষ্টিয়ার দৌলতপুরে ডি বি পুলিশের অভিযানে অস্ত্র গুলি সহ আটক-২ কুষ্টিয়ায় পর্নোগ্রাফি আইনে ৬ ছাত্রলীগ নেতাকর্মীর নামে নেত্রীর মামলা কুষ্টিয়ায় ছাত্রলীগ নেতা ও নেত্রীর পাল্টাপাল্টি সংবাদ সম্মেলন   কুষ্টিয়ার দৌলতপুরে সোহেল নামের এক যুবকে হাতুড়ি দিয়ে পিটিয়ে ৫৫ হাজার টাকা আত্মসাৎ কুষ্টিয়ায় সন্তান জন্ম দিয়ে এসএসসি পরীক্ষায় অংশগ্রহন করলেন মা

কুষ্টিয়ায় ৮ম শ্রেণীর ছাত্রীকে ধর্ষণ করায় তিনজনের যাবজ্জীবন কারাদন্ড 

নিজস্ব প্রতিবেদক:
  • আপডেটের সময়। বৃহস্পতিবার, ১৫ সেপ্টেম্বর, ২০২২
  • ১৮৬ টাইম ভিউ

কুষ্টিয়ার মাদ্রাসার ৮ম শ্রেণীর ছাত্রীকে ধর্ষণ করায় শাহাদত হোসেন স্বাধীন (৪৭), নুরুল ইসলাম মন্টু (৫৭) ও তার স্ত্রী বেদেনা ইসলাম (৫০) নামে তিনজনের যাবজ্জীবনের কারাদন্ডের আদেশ দিয়েছেন আদালত। সে সঙ্গে তাদের প্রত্যেকেই এক লক্ষ টাকা অর্থদন্ডে দন্ডিত করেন আদালত। আজ সকালের দিকে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক সৈয়দ হাবিবুল ইসলাম একজন আসামীর উপস্থিতিতে এ রায় ঘোষনা করেন। রায় ঘোষনার সময় আদালতে নুরুল ইসলাম মন্টু এবং তার স্ত্রী বেদেনা ইসলাম উপস্থিত না থাকায় তাদের সাজা পরোয়ানাসহ গ্রেপ্তার করার আদেশ দেন পুলিশকে আদালত। সাজাপ্রাপ্ত আসামীরা হলেন কুমারখালী উপজেলার পূর্ব লাহিনীপাড়া মৃত আব্দুল কুদ্দুসের ছেলে শাহাদত হোসেন ওরফে স্বাধীন, পূর্ব থানাপাড়া একতারা মোড় এলাকার মৃত জয়েন উদ্দিনের ছেলে নুরুল ইসলাম ও তার স্ত্রী বেদেনা ইসলাম।

আদালতের মামলা সূত্রে জানা যায় ২০২০ সালে ফেব্রুয়ারী ২ তারিখে হরিশংকরপুর মোহাম্মদীয়া ইসলামিয়া দাখিল মাদ্রাসার ৮ম শ্রেণী ছাত্রী কাগজ কলম কেনার জন্য বাড়ী থেকে বের হন। প্রতিবেশী সম্পর্কে তার চাচা স্বাধীনের সাথে দেখা হলে কাগজ কলম কেনার কথা বলে তাকে অটো রিক্সায় করে সিঙ্গার মোড় এলাকায় আসামী নুরুল ইসলামের বাড়ীতে নিয়ে গিয়ে জোরপূর্বক ছাত্রীর ইচ্ছার বিরুদ্ধে বিয়ের প্রলোভন দিয়ে ধর্ষণ করে। ঘটনার বিকেলে কুষ্টিয়া মডেল থানায় তিনজনের নাম উল্লেখ করে নারী ও শিশু নিযৃাতন দমন আইনে মামলা দায়ের করেন।
মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এস আই লিপন সরকার ২০২০ সালের সেপ্টেম্বর ৩০ তারিখে তদন্ত শেষে আসামিদের বিরুদ্ধে আদালতে তদন্ত প্রতিবেদন দাখিল করেন। এরপর আদালত এ মামলায় সাক্ষ্যপ্রমাণ শেষে আজ রায় ঘোষণার দিন ধার্য করেন।
অপর দিকে, সরকারী টাকা আত্মসাতের অভিযোগের প্রেক্ষিতে দুদুকের মামলায় কুষ্টিয়ার স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিপ্তরের পিয়নকে ছয় বছর, হিসাব রক্ষককে দুই বছর ও মসজিদের ইমাম চার বছর করে তিনজনকে বিভিন্ন মেয়াদের কারাদন্ড ও অর্থদন্ডের আদেশ দিয়েছেন আদালত। আজ সকালের দিকে বিশেষ জেলা ও দায়রা আদালতের বিচারক মোঃ আশরাফুল ইসলাম আসামীদের উপস্থিতিতে এ রায় ঘোষনা করেন।

দন্ডপ্রাপ্তরা হলেন পল্লী উন্নয়ন প্রকল্প ১৮ এলজিইডির পিয়ন আব্দুল মতিনকে, এলজিইডি মসজিদের ইমাম ক্বারী আবুল কাশেম ও হিসাব রক্ষক শেখ সাফায়েত হোসেন।

আপনার সামাজিক মিডিয়া এই পোস্ট শেয়ার করুন

এই বিভাগের আরো খবর