কুষ্টিয়ায় ধর্ষককে ধরে পুলিশে দিলেন এলাকাবাসী

তুফান ইসলাম:
  • আপডেটের সময়। বুধবার, ৭ সেপ্টেম্বর, ২০২২
  • ৩১৯ টাইম ভিউ

কুষ্টিয়ার কুমারখালীতে পাওনা টাকা ফেরত দেবার শর্তে গৃহবধূকে একাধিকবার ধর্ষণের অভিযোগ পাওয়া গেছে সাত্তার নামের এক লম্পটের বিরুদ্ধে। ঘটনাটি চাপড়া ইউনিয়নের চর বহলা গ্রামে ঘটেছে। মঙ্গলবার রাত ১১.৩০ টার দিকে গৃহবধূর স্বামীর বাড়ির পাশের বাগান থেকে ধর্ষণ চেষ্টাকালে অভিযুক্ত সাত্তারকে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করেছে গৃহবধূর স্বামী ও এলাকাবাসী। গৃহবধূর স্বামী বাদী হয়ে রাতেই কুমারখালী থানায় ধর্ষণ চেষ্টার মামলা করেছে।

অভিযুক্ত ব্যক্তি চাপরা ইউনিয়নের চরচাপড়া গ্রামের মৃত সামুর ছেলে সাত্তার (৪০)।

গৃহবধূ জানান, তার সাথে সাত্তারের সম্পর্ক ছিলো যেকারণে স্বামীকে না জানিয়ে তিনি ২ টা এনজিও থেকে ১ লাখ টাকা ঋণ তুলে সাত্তারকে দেন। কিন্তু সাত্তার সেই টাকা ফেরত না দিয়ে টালবাহানা করতে থাকে এবং বিভিন্ন সময় বিভিন্ন জায়গায় টাকা ফেরত দেবার কথা বলে ডেকে নিয়ে গিয়ে তাকে ধর্ষণ করে। উপায়ন্তর না দেখে শেষে তিনি বিষয়টি তার স্বামীকে জানান। এবং মঙ্গলবার রাতে কৌশলে তিনি সাত্তারকে ডেকে আনেন এসময় ধর্ষণ চেষ্টাকালে তার স্বামী ও এলাকাবাসী সাত্তারকে হাতেনাতে ধরে গাছের সাথে বেঁধে রেখে পুলিশে খবর দেয়।

এ বিষয়ে কুমারখালী থানার ওসি কামরুজ্জামান তালুকদার জানান, গৃহবধূকে ধর্ষন চেষ্টাকালে অভিযুক্তকে এলাকাবাসী ধরে পুলিশে সোপর্দ করেছে। এ ঘটনায় থানায় ধর্ষণ চেষ্টার মামলা হয়েছে।

আপনার সামাজিক মিডিয়া এই পোস্ট শেয়ার করুন

এই বিভাগের আরো খবর