শিরোনামঃ
ঘুড়ি প্রতীক নিয়ে লড়বেন অ্যাড. মুহাইমিনুর রহমান পলল কুষ্টিয়া দৌলতপুরে ২০ বোতল ফেনসিডিল ও পাখি ভ্যান সহ ১ জন আটক ইবি থিয়েটারের পথনাটক পরিবেশনা ইবিতে ওবিই কারিকুলাম প্রিপারেশন বিষয়ে কর্মশালা অনুষ্ঠিত নিজ জেলা কুষ্টিয়াতে অভিনন্দন না পেয়ে আক্ষেপ করে যা বললেন সাফ চ্যাম্পিয়ন নীলা কুষ্টিয়ার দৌলতপুরে ডি বি পুলিশের অভিযানে অস্ত্র গুলি সহ আটক-২ কুষ্টিয়ায় পর্নোগ্রাফি আইনে ৬ ছাত্রলীগ নেতাকর্মীর নামে নেত্রীর মামলা কুষ্টিয়ায় ছাত্রলীগ নেতা ও নেত্রীর পাল্টাপাল্টি সংবাদ সম্মেলন   কুষ্টিয়ার দৌলতপুরে সোহেল নামের এক যুবকে হাতুড়ি দিয়ে পিটিয়ে ৫৫ হাজার টাকা আত্মসাৎ কুষ্টিয়ায় সন্তান জন্ম দিয়ে এসএসসি পরীক্ষায় অংশগ্রহন করলেন মা

কুষ্টিয়ায় চিকিৎসা নিতে নিখোঁজের একদিন পর হাসপাতালের বাথরুম থেকে অচেতন অবস্থায় মহিলা উদ্ধার

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদকঃ রবিউল ইসলাম হৃদয়।
  • আপডেটের সময়। মঙ্গলবার, ৬ সেপ্টেম্বর, ২০২২
  • ১৪১ টাইম ভিউ

কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসা নিতে এসে নিখোঁজ হওয়া বৃদ্ধা মহিলাকে পাওয়া গেছে। মঙ্গলবার (৬ সেপ্টেম্বর) সকাল সাড়ে ১১টার দিকে কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালের বাথরুমে অচেতন অবস্থায় তাকে পাওয়া যায়। তিনি কুষ্টিয়া সদর উপজেলার হাটশ হরিপুর ইউনিয়নের পুরাতন কুষ্টিয়া গ্রামের সলক উদ্দিনের মা।

এর আগে সোমবার (৫ সেপ্টেম্বর) সকাল ১১ টার দিকে হাসপাতালের বহির্বিভাগে চিকিৎসা নিতে আসেন ওই বৃদ্ধা মহিলা। ওই মহিলার পরিবারের সাথে কথা বলে জানা যায়, চিকিৎসার কথা বলে গ্রামের সহজ সরল এ বৃদ্ধা মহিলাকে হাসপাতালের বাথরুমে নিয়ে গিয়ে অচেতন করে তার কাছে থাকা কানের দুল, মোবাইল ফোন ও নগদ টাকা লুট করেছে প্রতারক চক্র।

বৃদ্ধার স্বজনদের থেকে জানা যায়, সোমবার (৫ সেপ্টেম্বর) কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসা নিতে আসার পর থেকেই তার মোবাইল ফোন বন্ধ পাওয়া যায়। সকাল গড়িয়ে বিকেল হয়ে গেলেও ওই বৃদ্ধা মহিলা বাড়ী ফিরে আসে না। হাসপাতাল এলাকাসহ সম্ভাব্য সবখানে খোঁজাখুজি করেও তার সন্ধান পায় না তার পরিবার। পরে কুষ্টিয়া মডেল থানায় সাধারণ ডায়েরী করা হয়।

এরপর আজ মঙ্গলবার (৬ সেপ্টেম্বর) আনুমানিক সকাল সাড়ে ১১টার দিকে হাসপাতালের পুরাতন ভবনের নিচতলায় একটি বাথরুমে তাকে অচেতন অবস্থায় দেখতে পেয়ে হাসপাতালে দায়িত্বরত পুলিশকে খবর দেয় স্থানীয়রা। পুলিশ নিখোঁজ মহিলার পরিবারকে খবর দিলে তারা গিয়ে তাকে শনাক্ত করে।
বর্তমানে ওই বৃদ্ধা মহিলা হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে।

এদিকে সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, হাসপাতালের পুরাতন ভবনের প্রায় প্রতিটি বাথরুমেই রয়েছে ব্যবহৃত একাধিক চেতনানাশক ইনকেশনের শিশি ও সিরিঞ্জ। সূত্রের দাবি, হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের একটি অংশ এ চক্রের সাথে জড়িত রয়েছে। তাদের যোগসাজসে এ চক্র চিকিৎসা নিতে আসা সহজ সরল ব্যক্তিদের চিকিৎসার কথা বলে অচেতন করে সব লুট করে নেয়।

এ বিষয়ে ভুক্তভোগী পরিবার ও সচেতন মহল কুষ্টিয়া জেলা প্রশাসকের দৃষ্টি আকর্ষণ করেছে।

আপনার সামাজিক মিডিয়া এই পোস্ট শেয়ার করুন

এই বিভাগের আরো খবর