খোকসায় ভাড়াকৃত মোটর সাইকেল চালক হত্যার দায়ে আমৃত্যু-২ ও এক নারীর যাবজ্জীবন কারাদন্ড

বার্তা সম্পাদকঃ রুমন ইসলাম
  • আপডেটের সময়। রবিবার, ৪ সেপ্টেম্বর, ২০২২
  • ১১৮ টাইম ভিউ

কুষ্টিয়ার খোকসায় ভাড়াকৃত মোটর সাইকেল চালক নজরুল ইসলাম ওরফে লতিফ (৩০) কে অপহরণ করে হত্যা মামলায় ফজলু, মজিবর নামে দুইকজনকে আমৃত্যু কারাদন্ড এবং খুশি বেগম নামে এক নারীকে যাবজ্জীবন কারাদন্ডের আদেশ দিয়েছেন আদালত। সে সঙ্গে প্রত্যেককে ২০ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরও এক বছরের সশ্রম কারাদন্ডের আদেশ দেন। আজ দুপুরের দিকে অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজের বিচারক মো. তাজুল ইসলাম জনাকীর্ন আদালতে একজন আসামীর উপস্থিতিতে এ রায় ঘোষনা করেন। রায় প্রদান শেষে আসামীকে কঠোর পাহাড়ায় জেলা কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন এবং বাকী দুইজন আসামী পলাতক থাকায় তাদেরকে দ্রুত গ্রেপ্তার করে শাস্তির নির্দেশ দেন আদালত।
আমৃত্যু দন্ডপ্রাপ্ত হলো- কুষ্টিয়া সদর উপজেলার মিলপাড়া তোফাজ্জেলের ছেলে ফজলু, রাজবাড়ী উপজেলার বেলগাছি গ্রামের আজিজ সর্দার মোড়ের ইমানের জামায় মজিবর। যাবজ্জীবন দন্ডপ্রাপ্ত হলেন খোসা উপজেলার উত্তর শ্যামপুর গ্রামের মজনুর স্ত্রী খুশি বেগম ওরফেস কলসি।
আদালত সূত্রে জানা যায়, ২০১৩ সালের ১৬ জুলাইয়ের সকালের দিকে মোটর সাইকেল চালক নজরুল ইসলাম ওরফে লতিফ মোটর সাইকেল ভাড়া মারার উদ্দেশ্যে বাড়ী থেকে বের হয় এবং পরের দিন সকালে দুপুরের দিকে খোকসা উপজেলার উত্তর শ্যামপুর পাটখেতের মধ্যে অজ্ঞাতনামা মস্তকবিহীন এবং জামা কাপড় বিহীন অবস্থায় মৃত দেহ দেখতে পেয়ে পুলিশকে খবর দেন স্থানীয়রা। পরে নিহতের বড় ভাই ঘটনাস্থলে গিয়ে নিহতের শারিরীক গঠন আকৃতি দেখে সনাক্ত করেন। এ বিষয়ে ঘটনার পরের দিন খোকসা থানায় নিহতের বড় ভাই বিল্লাল সেখ বাদী হয়ে ৩জনকে আসামী করে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন।

মামলাটি তদন্ত শেষে ২০১৪ সালের ৩০ শে জুন তদন্তকারী কর্মকর্তা খোকসা থানার এস আই জহিরুল হক আসামীদের বিরুদ্ধে অভিযোগ এনে চার্জশীট দাখিল করেন আদালতে। মামলার বিচারকার্য শেষে বিজ্ঞ আদালত আজ রায়ের দিন ধার্য করেন।

আপনার সামাজিক মিডিয়া এই পোস্ট শেয়ার করুন

এই বিভাগের আরো খবর