শিরোনামঃ
এখন টিভির কুষ্টিয়া প্রতিনিধি সোহেল পারভেজের জন্মদিন আজ কুষ্টিয়া ট্রাফিক অফিস বার্ষিক পরিদর্শন করলেন এসপি খাইরুল আলম সুশাসন প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে ইবিতে অংশীজনদের সমন্বয় সভা। মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর নিকট থেকে ইবি হ্যান্ডবল দল ও বাস্কেটবল দলের (চ্যাম্পিয়ন) পদক গ্রহণ। ইবিতে গ্লোবাল সিটিজেনশিপ এন্ড সিভিক এডুকেশন শীর্ষক দিনব্যাপী কর্মশালা অনুষ্ঠিত। দেশের সর্ববৃহৎ ব্যাংকিং নেটওয়ার্ক গড়ার প্রত্যয়ে আইএফআইসি ব্যাংক বিভিন্ন আয়োজনের মধ্যে দিয়ে পালিত হলো ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় দিবস। জনবাণী পত্রিকায় কুষ্টিয়া জেলা প্রতিনিধি হিসেবে নিয়োগ পেলেন সাংবাদিক হৃদয় কুষ্টিয়ায় ফুল বিক্রেতার গলা কাটা লাশ উদ্ধার ইবি’র ৪৩ বছর পূর্ণ হচ্ছে কাল

প্রেমের জেরে কলেজ ছাত্রকে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগ

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ
  • আপডেটের সময়। রবিবার, ১৭ জুলাই, ২০২২
  • ১৬৮ টাইম ভিউ

কুষ্টিয়ার কুমারখালীতে নয়ন কুমার সরকার (২২) নামের এক কলেজ ছাত্রকে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগ পাওয়া গেছে। রোববার (১৭ জুলাই) রাতের কোনো এক সময় উপজেলার নন্দনালপুর ইউনিয়নের সোন্দাহ গ্রামের মাঠের মধ্যে এঘটনা ঘটেছে।

ভোরবেলায় স্থানীয়রা তাকে গুরুতর আহত অবস্থায় পড়ে থাকতে দেখে। খবর পেয়ে স্বজনরা তাকে উদ্ধার করে কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে যায়। সেখান থেকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকায় যাওয়ার পথে দুপুরের দিকে তার মৃত্যু হয়।

নিহত নয়ন কুমারখালী উপজেলার নন্দনালপুর ইউনিয়নের গ্রামের যগরেশ কুমার সরকারের ছেলে। সে আলাউদ্দিন আহমেদ ডিগ্রি কলেজের এইচএসসি দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্র ছিলেন।

নিহতের স্বজনরা দাবি করছেন, প্রেম সংক্রান্ত জেরে নয়নকে ডেকে নিয়ে হাতুরি দিয়ে পিটিয়ে হত্যা করা হয়েছে। সারা শরীরে রক্তাক্ত আঘাতের চিহৃ রয়েছে।

পুলিশ, নিহতের পরিবার ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে, গতকাল শনিবার মধ্যরাত থেকে নিঁখোজ ছিল কলেজ ছাত্র নয়ন কুমার সরকার। পরিবারের সদস্যরা সারারাত খোঁজাখুজি করেও কোথায় পাইনি তাকে। এরপর ভোররাতে মুঠোফোনে খবর আসে নন্দনালপুর ইউনিয়নের সোন্দাহ নতুনপাড়া মাঠের মধ্যে সড়কের পাশে নয়নকে রক্তাক্ত জখম অবস্থায় পড়ে আছে। খবর পেয়ে স্বজনা দ্রুত ছুটে যায় এবং আহত অবস্থায় উদ্ধার করে কুষ্টিয়া ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট্য হাসপাতালে পাঠায়। সেখানকার কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব নিউরো সায়েন্স হাসপাতালে প্রেরণ করেন। পরে দুপুরে ঢাকা যাওয়ার পথে তার মৃত্য হয়।

নিহতের বাবা যগেশ কুমার সরকার বলেন, গতকাল মধ্যরাত থেকে নয়ন নিখোঁজ ছিল। মুঠোফোনটিও বন্ধ ছিল। অনেক খোঁজাখুজি করেও কোথাও পাইনি। পরে রোববার ভোররাতে মাঠের মধ্যে সড়কের পাশে পড়ে থাকার খবর পেয়ে ছুটে যায়। গিয়ে নয়নকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে যায়। সেখানকার ডাক্তার উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকা পাঠায় পরে ঢাকা যাওয়ার পথে মারা যায়া।

তিনি আরও বলেন, স্থানীয় এক মুসলিম মেয়ের সাথে প্রেমের সম্পর্ক ছিল। এনিয়ে পারিবারিকভাবে নয়নকে শাষণ করেছিলাম। ওই মেয়ের পরিবারের সদস্যরাই ডেকে নিয়ে পিটিয়ে হত্যা করেছে। আমি উপযুক্ত বিচার চাই।

নিহতের বোন লতা রাণী বলেন, ওরা আমার ভাইকে ডেকে নিয়ে হাতুরি দিয়ে পিটিয়ে হত্যা করেছে। আমি হত্যার বদলে হত্যা চাই। আমরা বিচার চাই।

এ বিষয়ে নন্দনালপুর ইউনিয়ন পরিষদের মেম্বর শাহীনুর রহমান বলেন, সকালে সড়কের পাশে রক্তাক্ত অবস্থায় পড়ে ছিল নয়ন। সারা শরীরের জখম ছিল। তাকে উদ্ধার করে প্রথমে কুষ্টিয়া সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়। অবস্থা খারাপ থাকায় সেখানকার চিকিৎসক ঢাকা পাঠায়। ঢাকা যাওয়ার পথে দুপুরে তার মৃত্যু হয়।

এ বিষয়ে কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার (আরএমও) আশরাফুল আলম বলেন, গুরুতর অবস্থায় ভোর সাড়ে ৬টার দিকে নয়নকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। তার অবস্থা আশংকাজনক হওয়ায় ভর্তির কিছুক্ষণ পরেই তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব নিউরো সায়েন্স হাসপাতালে রিফার্ড করা হয়।

এ বিষয়ে কুমারখালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কামরুজ্জামান তালুকদার বলেন, বিষয়টি অবহিত হয়েছি। লাশ মর্গে পাঠানো হবে। ময়নাতদন্ত শেষে সব জানা যাবে। পুলিশ বিষয়টি তদন্ত করে দেখছে।

আপনার সামাজিক মিডিয়া এই পোস্ট শেয়ার করুন

এই বিভাগের আরো খবর