শিরোনামঃ
কুষ্টিয়া ট্রাফিক অফিস বার্ষিক পরিদর্শন করলেন এসপি খাইরুল আলম সুশাসন প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে ইবিতে অংশীজনদের সমন্বয় সভা। মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর নিকট থেকে ইবি হ্যান্ডবল দল ও বাস্কেটবল দলের (চ্যাম্পিয়ন) পদক গ্রহণ। ইবিতে গ্লোবাল সিটিজেনশিপ এন্ড সিভিক এডুকেশন শীর্ষক দিনব্যাপী কর্মশালা অনুষ্ঠিত। দেশের সর্ববৃহৎ ব্যাংকিং নেটওয়ার্ক গড়ার প্রত্যয়ে আইএফআইসি ব্যাংক বিভিন্ন আয়োজনের মধ্যে দিয়ে পালিত হলো ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় দিবস। জনবাণী পত্রিকায় কুষ্টিয়া জেলা প্রতিনিধি হিসেবে নিয়োগ পেলেন সাংবাদিক হৃদয় কুষ্টিয়ায় ফুল বিক্রেতার গলা কাটা লাশ উদ্ধার ইবি’র ৪৩ বছর পূর্ণ হচ্ছে কাল প্রতারণার মাধ্যমে টাকা তুলে নেয়ায় দিশেহারা দরিদ্র শাজাহান

জামিন নিতে গিয়ে মাসুদ খা হত্যা মামলার ৫ আসামি কারাগারে

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ
  • আপডেটের সময়। বুধবার, ২৯ জুন, ২০২২
  • ২৭৭ টাইম ভিউ
  1.  মাসুদ খা (৪৫)কে পরিকল্পিত ভাবে হত্যার পর কুষ্টিয়া গড়াই নদীতে লাশ ভাষিয়ে দেয়, উক্ত মামলার ৫ আসামি সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে গিয়েছিলেন জামিনের জন্য। তবে আদালত জামিন নামঞ্জুর করে তাদেরকে কারাগারে প্রেরণের নির্দেশ দিয়েছেন।
    গত সোমবার ২৭ জুন দুপুরে কুমারখালি সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আমলী আদালত চ অঞ্চল এর বিচারক মো: জুয়েল রানা এ আদেশ দেন। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন বাদীপক্ষের আইনজীবী অ্যাডভোকেট মো.আসলাম পারভেজ।
    গত ৪ই মে কুষ্টিয়া শহরতলির চড় মিলপাড়া এলাকায় মাসুদ খা এর বাড়ি থেকে ভোর ৫ টায় আসামীগন ডেকে নিয়ে যায় তারপর থেকে মাসুদ খা কে আর খুজে পাওয়া যায় না, ৫ই মে বিকেল ৩ টার দিকে কুষ্টিয়া গড়াই ব্রিজের পাশে মাসুদ খা এর লাশ ভেষে ওঠে। মাসুদ খা এর স্ত্রী মোছা: হাসিনা বেগম বাদি হয়ে কোর্টে ৫ জন এর নাম উল্লেখ করে ও ৬-৭ জনকে অজ্ঞাত করে মামলা দায়ের করে। আসামী গন ১.গোলাম মোস্তফা লাভলু,২.মো:রঞ্জু হোসেন,৩.মো:মাসুদ রানা,৪.মো:দীন ইসলাম,৫.মোঃ রাসেল।
    নিহত মাসুদ খা এর ছেলে হাসিব কে গত ৯/৪/২০২২ তারিখে হত্যার হুমকি ও অকথ্য ভাষায় গালাগালি করে এই মামলার ১ নং আসামী গোলাম মোস্তফা লাভলু,এই ব্যাপারে ওইদিনই কুষ্টিয়া মডেল থানায় নিহত মাসুদ খা এর ছেলে হাসিব খা সাধারাণ ডায়েরি করে।
    এই হত্যার হুমকির ২৭ দিন পর মাসুদ খা খুন হয়।
    মামলার আয়ু মাসুদ পারভেজ বলেন এখনো মেডিকেল রিপোর্ট পাওয়া যায়নি, রিপোর্ট পেলে সব কিছু বঝা যাবে, সেই পর্যন্ত আসামিগন আদালতের হেফাজতে থাকবে।
    বর্তমানে মামলার তদন্ত চলমান সিআইডির হাতে আছে, নিহতের পরিবারের পক্ষ থেকে দাবি উঠেছে মামলার দ্রত কার্য দ্রুত সম্পন্ন করার।

আপনার সামাজিক মিডিয়া এই পোস্ট শেয়ার করুন

এই বিভাগের আরো খবর