শিরোনামঃ
কুষ্টিয়া শহরের ১০ নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের শোকাবহ আগস্ট উপলক্ষে আলোচনা সভা ও দোয়া অনুষ্ঠিত ভেড়ামারায় পুলিশের অভিযান… ৫ মাদকসেবী ও পলাতক আসামীসহ ১২ জন গ্রেপ্তার বঙ্গবন্ধু হত্যার মতো জঘন্যতম ঘটনা বিশ্বের বুকে দ্বিতীয়টি আর ঘটেনি পুলিশ কেস সিল মারায় কুষ্টিয়ায় ডাক্তারকে মারধরের অভিযোগ কন্যাদায়গ্রস্থ পরিবারকে সাহায্য করলো রোটারি অফ ঢাকা ব্রাইট কুষ্টিয়া মডেল থানা পুলিশের অভিযানে টাপেন্টাডল ট্যাবলেট সহ মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার ইবিতে জাতীয় শোক দিবস পালিত একটি অসম প্রেমের অকাল সমাপ্তি ছাত্রকে বিয়ে করা সেই শিক্ষিকা আত্মহত্যা করেছেন কুষ্টিয়া র‌্যাবের অভিযানে ২৮ বোতল ফেনসিডিল সহ ০১ মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার কুষ্টিয়ায় ট্রাফিক পুলিশের সার্জেন্ট নাজমুলের হাতে ভুয়া এডিসি (ডিএমপি) ডিবি আটক

কুষ্টিয়ায় ভাঙনের মুখে পদ্মা নদী আতংকে ভেড়ামারাবাসী

বার্তা সম্পাদকঃ রুমন ইসলাম
  • আপডেটের সময়। বুধবার, ২৯ জুন, ২০২২
  • ৮০ টাইম ভিউ

কুষ্টিয়ার ভেড়ামারা উপজেলা এলাকার পাশ দিয়ে বয়ে চলেছে পদ্মা নদী। বাহিরচর ইউনিয়নের মসলেমপুর থেকে মুন্সীপাড়া পর্যন্ত প্রায় ৬ কিলোমিটার পদ্মা নদীর ভাঙন তীব্র আকার ধারণ করেছে। পদ্মার ভাঙনে ফসলি জমি নদীতে বিলীন হয়ে যাচ্ছে। মঙ্গলবার ২৮জুন এমনি চিত্র দেখা গেছে, ভাঙন থেকে প্রায় দেড়শ মিটার দূরে ঝুঁকিতে রয়েছে প্রায় ৫ হাজারের মতো পরিবার।

এদিকে ভাঙন রোধে কার্যকর ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য বাহিরচর ইউনিয়নের ১২ মাইল ভাঙনকবলিত এলাকায় পদ্মাপাড়ে মানববন্ধন করেছেন হাজারো এলাকাবাসী।

মানববন্ধনে স্থানীয়রা বলেন, গত ৭ দিন আগে প্রথম দফায় নদীর পানি বেড়ে যায়। ফলে ভাঙনের তীব্রতা বেড়ে গেছে। ইতোপূর্বে কৃষকের সবজির মাঠ নদীতে ভেঙে গেছে। এক সপ্তাহের ভাঙনে প্রায় ২০০ বিঘা জমি নদীতে বিলীন হয়ে গেছে। এখন বাড়িঘর ভাঙনের মুখে। নদী এখন একশ মিটার দূরে রয়েছে বলে জানিয়েছে স্থানীয়রা।

ভাঙন রোধ করা না হলে সব নদীগর্ভে চলে যাবে, হাজার হাজার পরিবার ভিটা ছাড়া হবে। তাই ভাঙন রোধে দ্রুত কার্যকর ব্যবস্থা নেওয়ার দাবি জানিয়েছেন এলাকাবাসী।

মানববন্ধন শেষে সংক্ষিপ্ত সমাবেশে জাসদ কেন্দ্রীয় কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুল আলিম স্বপন প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন।

এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন- ভেড়ামারা পৌর মেয়র আনোয়ারুল কবির টুটুল, উপজেলা জাসদের সাধারণ সম্পাদক এসএম আনসার আলী, পৌর জাসদের সাধারন সম্পাদক আবু হেনা মোস্তফা কামাল বকুল, ইউনিয়ন জাসদের সাধারন সম্পাদক আবু হাসান, ইউপি সদস্য ফারুক হোসেন, সফিকুল ইসলাম প্রমুখ।

বক্তারা বলেন, প্রতিবছরই নদীতে চলে যাচ্ছে ফসলি জমি। এবার বসত বাড়ির নিকট চলে এসেছে। ৫ হাজার পরিবার হুমকির মুখে।

প্রধান অতিথি আব্দুল আলিম স্বপন বলেন, ভাঙনের বিষয়টি আমাদের সংসদ সদস্য জাসদ সভাপতি হাসানুল হক ইনুকে জানিয়েছি। তিনি পানি উন্নয়ন বোর্ডের (পাউবো) নির্বাহী প্রকৌশলীকে জানিয়েছেন। এরপর নির্বাহী প্রকৌশলী পরিদর্শন করে সার্ভে করে গেছেন। আমি ভাঙন রোধে আন্দোলনকারীর সঙ্গে একাত্মতা ঘোষণা করছি। প্রধান অতিথি আব্দুল আলিম স্বপন পদ্মা থেকে নদী থেকে বালু উত্তোলন বন্ধের দাবি জানান।

ইউনিয়ন জাসদের সাধারন সম্পাদক আবু হাসান বলেন, গত সাত দিন ধরে ভেড়ামারার বাহিরচর ইউনিয়নের মসলেমপুর এলাকা থেকে শুরু করে টিকটিকিপাড়া ও মুন্সিপাড়া পর্যন্ত ৬ কিলোমিটারজুড়ে নদী ভাঙন শুরু হয়েছে। তবে গত তিন দিনে তা তীব্র আকার ধারণ করেছে।

তিনি আরও বলেন, এ পর্যন্ত প্রায় ৫০০ পরিবারের প্রায় ১ হাজার ২শ বিঘা জমি ভাঙনে নদীর বুকে চলে গেছে। গত সাত দিনে ২০০ বিঘার জমির আউশ ধান, কলা, করোলা সবজিসহ ফসলি জমি নদীতে ভেঙে গেছে।

৮ নম্বর ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য ফারুক হোসেন বলেন, ভাঙনে এখন মোসলেমপুর, টিকটিকি পাড়া ও মুন্সীপাড়ার ৬ কিলোমিটারের মধ্যে পাঁচ হাজার পরিবার বসবাস করছে। এসব পরিবারের বাড়িঘর ভাঙনের ঝুঁকিতে রয়েছে। বাড়িঘর থেকে মাত্র ১০০ মিটার দূরে রয়েছে নদী। ভাঙনে শহিদুল মণ্ডলের ২ বিঘা, হাবিবুর রহমানের ৩ বিঘা, আবু বক্করের ৫ বিঘা, মজিবর প্রামাণিকের ২ বিঘাসহ ২শ বিঘা জমি নদীগর্ভে বিলীন হয়ে গেছে।

কুষ্টিয়া পানি উন্নয়ন বোর্ডের তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী আব্দুল হামিদ বলেন, আজকে সকালে নির্বাহী প্রকৌশলী ভাঙনকবলিত এলাকা পরিদর্শন করে সার্ভে করেছেন। বিষয়টি ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে জানানো হয়েছে। অনুমোদন পেলেই ভাঙন রোধে দ্রুত ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

আপনার সামাজিক মিডিয়া এই পোস্ট শেয়ার করুন

এই বিভাগের আরো খবর