শিরোনামঃ
একটি অসম প্রেমের অকাল সমাপ্তি ছাত্রকে বিয়ে করা সেই শিক্ষিকা আত্মহত্যা করেছেন কুষ্টিয়া র‌্যাবের অভিযানে ২৮ বোতল ফেনসিডিল সহ ০১ মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার কুষ্টিয়ায় ট্রাফিক পুলিশের সার্জেন্ট নাজমুলের হাতে ভুয়া এডিসি (ডিএমপি) ডিবি আটক ইবিতে ‘বি’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা সম্পন্ন কুষ্টিয়ায় র‌্যাবের অভিযানে বিপুল পরিমাণ হেরোইন সহ মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার আগামী ১৪ই আগষ্ট “প্রজন্ম থেকে প্রজন্মে চিরঞ্জীব, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব” কর্মসূচির প্রস্তুতি সভা অনুষ্ঠিত জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে ইবির শেখ রাসেল হলে আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিল কুষ্টিয়ায় র‍্যাবের সেরা অভিযানে বিপুল পরিমাণ ফেনসিডিল ও গাঁজা সহ শীর্ষ মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার কুষ্টিয়ায় র‌্যাবের অভিযানে বিপুল পরিমাণ ফেনসিডিল ও গাঁজা সহ ০১ মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার। কুষ্টিয়ায় দুটি হত্যা মামলায় ৬ জনের যাবজ্জীবন

কুষ্টিয়ায় ঘুষ গ্রহণের অপরাধে সহকারী প্রকৌশলীকে তিন বছরের কারাদন্ড

সম্পাদক ও প্রকাশকঃ আমিন হাসান
  • আপডেটের সময়। মঙ্গলবার, ১২ এপ্রিল, ২০২২
  • ৪৫১ টাইম ভিউ

আমিন হাসানঃ  কুষ্টিয়ায় ৪৮ হাজার টাকা ঘুষ গ্রহণের অপরাধে চুয়াডাঙ্গার স্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তরের সহকারী প্রকৌশলী মাহমুদ আলম (৫৩) নামে একজনকে দুইটি ধারায় তিন বছরের বিনাশ্রম কারাদন্ড ও ৫০ হাজার টাকা অনাদায়ে আরও ০৩ তিন মাসের বিনাশ্রম কারাদন্ডের আদেশ দিয়েছেন আদালত। আজ দুপুরে বিশেষ দায়রা জজ আদালতের বিচারক মোঃ আশরাফুল ইসলাম আসামীর উপস্থিতিতে এ রায় ঘোষনা করেন। রায় ঘোষনা শেষে আসামীকে পুলিশ পাহারায় জেলা কারাগারের প্রেরনের আদেশ দেন।
সাজাপ্রাপ্ত হলেন কুষ্টিয়া ছয় রাস্তার মোড় থানাপাড়া এলাকার মৃত আব্দুল বারীর ছেলে মাহমুদ আলম।
মামলা সূত্রে জানা যায় যশোর ডিভিশনের আওতায় চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতাল সহ অন্যান্য হাসপাতালে বিভিন্ন সংস্কার মূলক কাজ করার জন্য ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান মেসার্স এম এম কামাল এন্টারপ্রাইজ সহ আরও ১০টি ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান কার্যাদেশ প্রাপ্ত হয় এবং তাদের পক্ষে একজন ঠিকাদার খাইরুল ইসলাম কাজ করেন। ১১টি প্যাকেজের কন্সট্রাকশন কাজের ৪৩ লক্ষ ১৫ হাজার ৮৫০ টাকার সরকারী কাজ সম্পন্ন করে। ইঞ্জিনিয়ার মাহমুদ আলম উক্ত ৬টি পারফরমেন্স সিকিউরিটি মানি ফেরতের জন্য দরখাস্ত করার সময় খাইরুল ইসলাম এর কাছ থেকে ২লক্ষ ২০ হাজার টাকা ঘুষ দাবী করেন। পরবর্তীতে উক্ত টাকার মধ্যে ৫০ হাজার টাকা ঘুষ প্রদান করলে অভিযোগকারীকে ৬টি পারফরমেন্স সিকিউরিটি মানি ফেরতের জন্য দরখাস্তে মেমো নম্বর দেয়ার প্রতিশ্রুতির কথা বলেন।

পরবর্তীতে ২০১৫ সালের জুলাইয়ের ৭ তারিখে ঠিকাদার খাইরুল ইসলাম দুনীতি দমন প্রধান কার্যালয় ঢাকার অনুমোদনক্রমে দুনীতি দমন কমিশন সন্বিত কুষ্টিয়ার বরাবর সহকারী প্রকৌশলীর বিরুদ্ধে একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করে।
দুনীতি দমন কমিশন উপ-পরিচালক মোঃ আব্দুল গাফফার এর নেতৃত্বে ২০১৫ সালের আগষ্টের ১২ তারিখে ফাঁদ মামলা পরিচালনা করেন এবং ঠিকাদারীর খাইরুল ইসলামের মাধ্যমে ঐদিন সকালে ৫০ হাজার টাকা চুয়াডাঙ্গা স্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তর সহকারীর প্রকৌশলী ইঞ্জিনিয়ার মাহমুদ আলমকে উক্ত টাকা প্রদান করলে দুর্নীতি দমন কমিশন তাকে হাতে নাতে টাকাসহ মাহমুদ আলম গ্রেফতার করে চুয়াডাঙ্গা সদর থানায় অফিসার ইনচার্জ থানায় প্রেরণ করে এজাহার দায়ের করেন।

আপনার সামাজিক মিডিয়া এই পোস্ট শেয়ার করুন

এই বিভাগের আরো খবর